শীতের ‘অবসর’ – ক’টি লেখা

এবারের শীতের অবসরে প্রকাশিতব্য  চারটি লেখা নিয়ে কিছু কথা।

শীতের অবসর পত্রিকার প্রচ্ছদ বিষয় – শিক্ষা-দীক্ষা

তার জন্য রইল দুটি লেখা।

রাজকুমার চক্রবর্তীর জন্ম ও বেড়ে ওঠা পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার জগদ্দল-রাজপুর অঞ্চলে। প্রাবন্ধিক ও ইতিহাসের অধ্যাপক। উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ ইতিহাসচর্চা : নির্মাণ অবিনির্মাণ ও বিকৃতি, ফিদেল কাস্ত্রো : বিপ্লবের অন্য ইতিহাস। ‘হরিনাভি স্কুল: ইতিহাসে ও স্মৃতিতে দেড়শো বছর’ বইটির অন্যতম সম্পাদক। এ ছাড়াও আরও কিছু সম্পাদিত গ্রন্থের প্রণেতা। প্রবন্ধের পাশাপাশি ছোটোগল্পও প্রকাশিত হয়েছে কলকাতার প্রথম সারির পত্র-পত্রিকায়।

তাঁর লেখার বিষয় একটি পুরনো বিতর্কিত বিষয়ে আলোকপাত –

বামফ্রন্ট সরকার, ‘ইংরেজি বিলোপ’, বাঙলা-মাধ্যম বনাম ইংরেজি-মাধ্যম স্কুলশিক্ষা: একটি পর্যালোচনা

আশির দশকে এই ঘটনা তুমুল আলোড়ন তুলেছিল। এই একবিংশ শতাব্দীতে দাঁড়িয়ে ফিরে দেখা তার বিভিন্ন দিককে।

শেখর মুখোপাধ্যায় লব্ধ প্রতিষ্ঠ সাহিত্যিক। ওঁর গোয়েন্দা কাহিনী “গজপতি নিবাস রহস্য ধারাবাহিক ভাবে “দেশ” পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে । “অন্য কোনোখানে” দেশ পত্রিকায় প্রকাশিত ওঁর আরেকটি ধারাবাহিক কাহিনী। এছাড়া অন্যান্য উল্লেখযোগ্য গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে বৈবস্বত, জিয়ন নদী, অনিকেত, জন হাওয়ার্ড পেনের ডায়রি  ইত্যাদি। প্রকাশিত ইংরেজি গ্রন্থ – On the Trail of a Woman।

কর্মসূত্রে তিনি একজন অধ্যাপক। ‘অনলাইন’ শিক্ষাও এক নতুন দিগন্তের মুখে দাঁড়িয়ে। এই নিয়ে তাঁর অভিজ্ঞতা ও ভাবনা চিন্তা। সেই ভাবনাতেই সমৃদ্ধ তাঁর প্রবন্ধ ‘অনলাইন অন’

শীতের ‘অবসর’ নিয়ে এল একটি নতুন বিভাগ – ব্যক্তিগত গদ্য

সৌমিক বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে এম এ (স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত) ও এম ফিল; বর্তমানে গবেষণা করছেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রখ্যাত অধ্যাপক চিন্ময় গুহর তত্ত্বাবধানে। পেশায় একটি সরকার-পোষিত কলেজের অধ্যাপক। এশিয়াটিক সোসাইটি জার্নাল, ক্যালকাটা ইউনিভার্সিটি জার্নাল, অনুষ্টপ ইত্যাদি নানান পত্রপত্রিকায় ইংরেজি ও বাংলা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।

কর্মসূত্রে তিনি যে যে-কলেজের তিনি শিক্ষক, তার অবস্থান পশ্চিমবঙ্গের একেবারে দক্ষিণপ্রান্তে, বঙ্গোপসাগরের কূল-ঘেঁষে। প্রত্যন্ত এই কলেজের ‘অনলাইন’ শিক্ষার রূপায়ণের বিভিন্ন দিক নিয়ে তাঁর ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা।

বিনোদন বিভাগ

অনিরুদ্ধ ভট্টাচার্য, পেশায় ইঞ্জিনীয়ার হলেও সঙ্গীত তাঁর রক্তে ও নেশায়। বর্তমানে সপুত্র, সস্ত্রীক ব্যাঙ্গালোরের কর্মরত। সঙ্গীত ছাড়াও অন্য শখ সিনেমা ও কুইজ। বালাজী ভিট্টলের সঙ্গে লেখা তাঁর একটি বই “R. D. Burman: The Man The Music” ২০১২ সালে রাষ্ট্রপতি পুরস্কারপ্রাপ্ত।

বালাজী ভিট্টলের সঙ্গে শচীনদেব বর্মণকে নিয়ে লেখা তাঁর অপর বইটি হল “S. D. Burman: The Prince-Musician।”

প্রায় বিস্মৃত সুরকার অজয় দাসকে নিয়ে তাঁর ইংরেজি লেখা ‘সবই যে তোমারি গান’ প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল  ‘cinemaazi website’ এ। প্রধান সম্পাদক কর্তৃক অনুবাদিত হয়ে লেখাটি বাংলাতে প্রকাশ পেল অবসরের পাতায়, বিনোদন বিভাগে

প্রকাশ পাচ্ছে – ১৫ই জানুয়ারি, ২০২১

চোখ রাখুন – https://abasar.net/

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s