হারিঝি – চণ্ডী, বিভূতিভূষণ, মেঘের স্বপ্নপুরী

আজ বিভূতিভূষণের জন্মদিন। তাঁর জীবনে জড়িয়ে আছে রাজপুর – হরিনাভি অঞ্চল। বিভূতিভূষণের ডায়রিতে পাচ্ছি – ১৯৩৫ কাল রাজপুর বেড়াতে গিয়ে অপূর্ব জ্যোৎস্নালোকে হারিঝি-চণ্ডীর মাঠে বসেছিলুম। আমি আর ভম্বলাই(২)। ১৯৩৬ গত রবিবারে রাজপুর গিয়ে বেগুন(৩) ও আমি হারিঝি-চণ্ডী মাঠের ধারে সন্ধ্যায় বসেছিলুম। অনেকক্ষণ। ২ ভম্বল ভট্টাচাৰ্য, রাজপুরবাসী। ৩ অমরেন্দ্ৰনাথ লাহিড়ী, রাজপুরবাসী   এই হারিঝি-চণ্ডীর মাঠ আমাদের […]

Read More হারিঝি – চণ্ডী, বিভূতিভূষণ, মেঘের স্বপ্নপুরী

যায়’ না ‘যায় না’!!

 শংকরের ‘আশা-আকাঙ্খা’ বইটি আমার খুব প্রিয়। কদিন আগেই আবার পড়ছিলাম। এটি একটি ‘ট্রিলজি’র অন্তর্ভুক্ত – ‘স্বর্গ-মর্ত্য-পাতাল’!  বইটি উৎসর্গ করা হয়েছে শ্রী সত্যজিৎ রায় কে। শঙ্করের নিজের ভাষ্য অনুসারে – এই বইটিই স্বর্গ। উপন্যাসের শুরুতেও জানিয়েছেন সে কথা – “সেখানকার এক আধুনিক গবেষণাগারে ——– তাঁরা নীরবে যে আশা আকাঙ্খার স্বর্গলোক সৃষ্টির চেষ্টা করছেন তা সার্থক হোক […]

Read More যায়’ না ‘যায় না’!!

‘লাকি ক্যাপ্টেন’

প্রথম তাঁকে দেখেছিলাম ১৯৬৯ সালের ডিসেম্বর মাসে ইডেনে। জীবনের প্রথম টেস্ট খেলা দেখতে গিয়ে। চতুর্থ টেস্টের চতুর্থ দিনে ভারত যখন তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ছে, তিনিই ছিলেন প্রতিরোধের একমাত্র মুখ। ১৬১ রানের মধ্যে তাঁরই ৬২। ইনিংস পরাজয় এড়াতে মুখ্য ভূমিকা ছিল তাঁরই। আবার যখন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক বিল লরি স্ট্যাকপোলকে নিয়ে প্রয়োজনীয় অনধিক চল্লিশ রান করতে […]

Read More ‘লাকি ক্যাপ্টেন’

শুনিয়েছিলাম গান — 

শ্রদ্ধেয় অনিরুদ্ধ ধর কদিন আগেই সুপ্রিয়া দেবীকে নিয়ে লিখেছেন। তখন ‘সানন্দা’ পত্রিকাতে একটি আত্মজীবনী লিখছিলেন সুপ্রিয়া দেবী। সেই লেখার সঙ্গে অনিরুদ্ধদার খুব ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। আমি লেখাটি পড়তে খুব ভালবাসতাম। একদম আটপৌরে ভাষায় ঝরঝরে লেখা, খুব মন টানতো। এই কিশোর জন্ম ও রবীন্দ্রপ্রয়াণ পক্ষতে মনে পড়ছে একটি বিশেষ ঘটনার কথা। ‘দূর গগন কি ছাও মে’ তে […]

Read More শুনিয়েছিলাম গান — 

তাঁর শেষ পরিচয় – পূর্ণতার সঙ্গে

আজ (কোন পঞ্জিকা মতে গতকাল) রবীন্দ্রনাথের মৃত্যুদিন। যে মানুষটি তাঁর ছোটবেলা থেকেই মৃত্যুর সঙ্গে পরিচিত হয়ে চলেছিলেন বারেবার, বহুবছর আগে এই দিনেই মৃত্যুর সঙ্গে তাঁর শেষ পরিচয়।     তাঁর জীবনের মত মৃত্যুর উপলব্ধি আর কারুর হয়েছে বলে জানা নেই। আশ্চর্য, তা সত্ত্বেও তাঁর পথচলা থামেনি। খুব ছোটবেলাতেই মাতা, মাতৃস্বরূপ বৌদি, বাবা, নিজের ছেলে, মেয়ে, […]

Read More তাঁর শেষ পরিচয় – পূর্ণতার সঙ্গে

প্রবাসে ‘প্রভাতে’র আলোর স্পর্শ

১৯৮৩ সাল। সেবছর জুন মাসে ভারতে দু দুটো বড় ঘটনা ঘটেছে, আমরা ইঞ্জিনীয়ার হয়েছি, আর কপিলের ভারত বিশ্বজয় করেছে। এক ‘নতুন প্রভাত’ জাগার সময় হয়েছে। ভাগ্যান্বেষণে আমরাও এসে পড়েছি ব্যাঙ্গালোরে। তখনো জানিনা, এখানে আমাদের জন্যেও এক ‘নতুন প্রভাত’ অপেক্ষা করছে। আমাদের অফিসে তখনো বাঙালীর সংখ্যা বেশী নয়। সেখানে সাত সাত খানি নব্য যুবার আবির্ভাব বেশ […]

Read More প্রবাসে ‘প্রভাতে’র আলোর স্পর্শ