বর্ণালী – তোমাকে মনে করে

তোমার সঙ্গে প্রথম আলাপ এই গানের গ্রুপেই, যার নাম – Bengali Music। বিভিন্ন গানের পোস্টে কিছু কথা লিখে দিতাম, খুব পছন্দ করতে তুমি। আর যদি কোন থীম লিখতাম, জয়িতা আর তুমি উচ্ছ্বসিত হয়ে উঠতে। গ্রুপের বাইরেও বন্ধুত্ব আমাদের বেড়েছিল। আমার প্রায় প্রত্যেক পোস্টেই তোমার নিয়মিত মন্তব্য পাওয়াটা আমার অভ্যাস হয়ে গিয়েছিল। সদ্য পরিচিত হওয়ার পর, […]

Read More বর্ণালী – তোমাকে মনে করে

দুর্গা দা / দুর্গাবাবু

দুদিন আগে রাজুর ফেসবুক পোস্টে দেখলাম – “হরিনাভি ডি ভি এ এস হাই স্কুলের শিক্ষক দুর্গাবাবু (দুর্গাপদ ভট্টাচার্য) প্রয়াত হয়েছেন। ছাত্রজীবনে যে-কজন শিক্ষকের স্নেহ সবচেয়ে বেশি করে পেয়েছি তাঁদের মধ্যে দুর্গাবাবু সম্ভবত একেবারে শীর্ষে থাকবেন। উনি ছিলেন শারীরশিক্ষার শিক্ষক (অন্য সাবজেক্টও চমৎকার পড়াতেন) ।“ মনটা বেশ খারাপ হয়ে গেল। সঙ্গে একরাশ স্মৃতিও ভীড় করে এল। […]

Read More দুর্গা দা / দুর্গাবাবু

আজীবন কর্মী, ‘সমতটে’র আপনার জন – মেজমামা

বেশ কয়েকবছর ধরে রোববারের সকালের কথাবার্তা চলতো এরকম। আমি শুরু করতাম – মেজমামা উত্তর দিত, গুড মর্ণিং! শরীর ঠিক? একদম। ফাসক্লাস! অফিস চলছে? অফিস, বাজার, আড্ডা – সব চলছে। রবিবার সকালে ‘ভগবান’ এর ফোন এলে মন ভালো হয়ে যায়। আমি রিটায়ার করার পর একটু অন্যরকম হয়ে গেল। মেজমামা, আমি রিটায়ার করে গেলাম – তুমি এখনো […]

Read More আজীবন কর্মী, ‘সমতটে’র আপনার জন – মেজমামা

জয়নগরের ‘ছোটমামা’

আমাদের রাজপুরের যৌথ পরিবারে দুটি মামারবাড়ি ছিল – প্রচুর পরিমাণ মামা, মামী, মাসী, মেশোমশাইয়ের মধ্যেই আমাদের বড় হয়ে ওঠা।আমার বাবা একদিন কথায় কথায় আমাকে বলেছিলেন, ‘জানিস, আমাদের পরিবারে ও সমাজে অবিবাহিত লোকেদের একটা বড় ভূমিকা থাকে, সব্বাইকে একসঙ্গে ধরে রাখার জন্য। তাঁদের নিরপেক্ষতা নিয়ে কখনো প্রশ্ন ওঠেনা।”আমাদের বৃহৎ পরিবারে আমি নিজের জীবন দিয়ে দুজন অবিবাহিত […]

Read More জয়নগরের ‘ছোটমামা’

রাজকুমার ও রাজপুর

                                          পৃথিবী জুড়ে কোভিডাতঙ্ক চলছেই। অফিস, পাড়া-পড়শী, বন্ধুবান্ধব, – সম্পর্কে বিভিন্ন খবর আসছিলো, এবারে একেবারে ঘরের লোক। আমাদের সেজমামা কোভিডে আমাদের ছেড়ে গেলেন। ভাইবোনেদের মধ্যে সর্বপ্রথম বিদায় নেন, আমার মা। তারপর বড়োমামা, এবারে সেজমামা। কিন্তু এই বিদায়টি বড়ো মর্মান্তিক। যে মামাবাড়িতে খুব ছোটোখাটো অনুষ্ঠানে শতাধিক লোকের আগমন হতে পারতো, আজ সেজমামার বিদায়ের পাত্রখানি ভরে […]

Read More রাজকুমার ও রাজপুর

বর্ণময় শিক্ষক – পিনাকী দা

১৯৭৭ সালের মাঝামাঝি রাজনৈতিক পালাবদলের মাধ্যমে বাঙালির জীবনে খুব বড় রকমের পরিবর্তন এলো। আমার জীবনেও। হরিণাভি স্কুলের পালা চুকিয়ে ভর্তি হলাম কলকাতার এক বিখ্যাত স্কুলে। পাঠভবনের তখন খুবই নাম। সত্যজিতের স্কুল! অনেক বড় বড় মানুষের ছেলেরাও পড়তো সেখানে। সন্দীপ রায়, অমিতকুমার এরাও ছিলেন পাঠভবনের ছাত্র। সত্যজিতের ছবির তোপসে আর মুকুলও পাঠভবনের ছাত্র। ইন্টার্ভিউতে গিয়ে জানলাম […]

Read More বর্ণময় শিক্ষক – পিনাকী দা

বিধানচন্দ্র

বিধানচন্দ্রের জীবনের অনেক ঘটনাই আমাদের জানা। বিভিন্ন লোকের স্মৃতিচারণ ও আলাপচারিতাতে তাঁর বেশ কিছু চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য ধরা পড়েছে। যেমন ‘ঈশ্বর পৃথিবী, ভালবাসা’ তে শিবরামের জবানবন্দী। শিবরাম একবার পড়লেন খুব টানাটানিতে। তখন দেশবন্ধুও নেই। কি করেন? বিধান রায়ের খুব নাম । কিন্তু এমনি এমনি তো আর যাওয়া যায় না।  অসুস্থতার  ভান করে চিকিৎসা করাতে গেছিলেন বিধান […]

Read More বিধানচন্দ্র

মিনিবাসে রবীন্দ্র ‘পরিক্রমা’

আমার কৈশোরে আমার এক নায়ক ছিলেন। তিনি একজন লেখক, কিন্তু তাঁকে পড়া যেত না, শোনা যেত রেডিওতে। প্রতিদিন রাত দশটায়। পরে জেনেছি আমার মত তাঁর আরো অনেক ভক্ত ছিল। একজন দেবব্রত বিশ্বাস। তরুণ চক্রবর্তী র সঙ্গে আলাপচারিত তে অনুরোধ করেছিলেন, “আমি মারা গেলে আমাকে নিয়ে যে সংবাদ পরিক্রমা লিখবেন প্রণবেশ সেন, সেটি আপনিই পড়বেন।” সংবাদ […]

Read More মিনিবাসে রবীন্দ্র ‘পরিক্রমা’

বড়মামা

বয়েস বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হারিয়ে যাচ্ছেন আমাদের কিছু প্রিয় মানুষ। খুব ছোটবেলা থেকে যাঁরা আমাদের মাথায় হাত রেখেছিলেন। এমনই একজন আমার বড়মামা। কিছুদিন আগেই যিনি বিদায় নিলেন, রেখে গেলেন বেশ কিছু স্মৃতি।

Read More বড়মামা

কৈশোরের মফস্বলী শীত

এবার ব্যাঙ্গালোরে বেশ ছ্যাঁকছ্যঁকে ভাব। ঠাণ্ডা সেভাবে কোনদিনই পড়ে না, বরং বর্ষাকালে তুলনামূলকভাবে বেশী শীত করে। আমাদের মফস্বলে শীতের প্রকোপ কিন্তু বেশ ভালই ছিল। আমাদের রাজপুরে কালীপুজোর সময় থেকেই বেশ শীতশীত ভাব। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে পরীক্ষা শেষ আর ছুটির শুরু। অভিভাবকরাও তখন এতআড়বুঝো ছিলেন না, দিব্যি খেলতে দিতেন ঐ সময় – নো পড়াশোনা –শুধু খেলা। […]

Read More কৈশোরের মফস্বলী শীত